,
সংবাদ শিরোনাম :

বিএনপি জনগণের দল, ষড়যন্ত্রে ধ্বংস হবে না: ফখরুল

সময় সংলাপ ডেস্ক

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, সরকার যত ষড়যন্ত্র করুক না কেন বিএনপিকে নিশ্চিহ্ন করতে পারবে না। বিএনপি বারবার ধ্বংসস্তূপের মধ্যে থেকেও ফিনিপ পাখির মতো জেগে উঠেছে। সরকারের ষড়যন্ত্র রুখতে দলের নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।আন্দোলনের মধ্য দিয়েই নির্বাচনে যেতে হবে বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

সোমবার সন্ধ্যায় রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে জাতীয়তাবাদী দল ঢাকা মহানগর উত্তর আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মির্জা ফখরুল এই মন্তব্য করেন।

বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ৫৩তম জন্মদিন উপলক্ষে এই সভার আয়োজন করে ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপি।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ক্ষমতাসীনরা দলের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করে বিএনপিকে ধ্বংসের ষড়যন্ত্র করছে। সংলাপ ও সমঝোতার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীকে বলবো, অবিলম্বে সংসদ ভেঙে দিয়ে আলোচনায় বসুন। নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের ব্যবস্থা করুন। তাতে যে দলই ক্ষমতায় আসবে তাদের সমর্থন জানাবে বিএনপি।

তিনি বলেন, সরকার নাকি ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির মতো নির্বাচন করে ক্ষমতায় গিয়ে ২০২১ সালে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন করতে চায়। নিরপেক্ষ নির্বাচন দিয়ে ক্ষমতায় যান এবং স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী পালন করুন। কোনো আপত্তি নেই।

মির্জা ফখরুল বলেন, খালেদা জিয়াকে নির্বাচনের বাইরে রাখার ষড়যন্ত্র করছে সরকার। বিএনপি জনগণের দল। তাকে ধ্বংস করা যাবে না। এই দল ধ্বংসস্তূপ থেকে ফিনিপ পাখির মতো জেগে উঠবে। বাংলাদেশের মানুষের ভালোবাসা কোনোদিন দাবিয়ে রাখা যাবে না। দলের নেতাকর্মীদের গ্রামগঞ্জে মানুষের ঘরে ঘরে যাওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, সরকারের বিরুদ্ধে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। ঐক্যবদ্ধ হলেই বিএনপি ক্ষমতায় যাবে।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের সাম্প্রতিক বক্তব্যকে কিছুটা বাস্তববাদী উল্লেখ করে মির্জা ফখরুল বলেন, ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপিকে অস্বীকার করা যাবে না। এর পেছনে এখনও বহু লোক আছে। অথচ জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু প্রায়ই বলে থাকেন, বিএনপির রাজনীতি বন্ধ করতে হবে। আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ বলেন, বিএনপিকে রাজনীতি করতে দেওয়া যাবে না।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি মুন্সি বজলুল বাসিত আনজু। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আবদুস সালাম, যুগ্ম মহাসচিব হাবিব-উন-নবী খান সোহেল, সহ-সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ, যুবদলের সাইফুল ইসলাম নিরব, সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, স্বেচ্ছাসেবক দলের শফিউল বারী বাবু, সাধারণ সম্পাদক আহসানউল্লাহ হাসান, মহানগর দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক কাজী আবুল বাশারসহ মহানগর উত্তরের নেতাকর্মীরা।


প্রতিদিন সব ধরনের খবর জানতে ও মজার মজার ভিডিও দেখতে আমাদের ফেইসবুক পেজে লাইক কমেন্ট শেয়ার করে এক্টিভ থাকুন -বাংলাদেশ অনলাইন, পত্রিকা, সময় সংলাপ ডট কম,আমাদের ফেইসবুক পেজ লাইক দিতে নিচে ফেইসবুক লাইক বটন এ ক্লিক করুন ,অনেক ধন্যবাদ আবার আসবেন

sponser