,
সংবাদ শিরোনাম :

যে দশ পেশার পুরুষের প্রতি নারীরা দুর্বল..দেখুন বিস্তারিত

সময় সংলাপ ডেস্ক

পুরুষের বিশেষ কিছু পেশার প্রতি নারীদের আকর্ষণ রয়েছে। রুচিভেদে এর তারতম্য রয়েছে। রিলেশানশিপ ম্যানেজমেন্ট সংস্থা ‘আ হার্ট টু উইন’ পরিচালিত একটি সমীক্ষা দাবি করছে ১০টি পেশার পুরুষদের মেয়েদের বিশেষ নজরে দেখে। কোন ১০টি পেশার প্রতি মেয়েদের আকর্ষণ? জেনে নিন-

১. ফটোগ্রাফার: বয়ফ্রেন্ড তার সুন্দর সুন্দর ছবি তুলুক, এটা কোন মেয়ে না চাইবে! কাজেই ফটোগ্রাফারদের প্রতি আলাদা আকর্ষণ মেয়েদের থাকেই।

২ শেফ: প্রেমিক বা বর যদি ভাল রাঁধতে জানে, তা হলে তা যে কোনও মেয়ের পক্ষেই আনন্দের। তা ছাড়া নামজাদা শেফদের রোজগারও প্রচুর।

৩. সেনাকর্মী: দেশরক্ষার মতো মহৎ কাজে যিনি নিজেকে সঁপে দিয়েছেন, সেই পুরুষের কাছে হৃদয় হারাতে প্রস্তুত থাকবে অনেক মেয়েই।

৪ পাইলট: আকাশের কাছাকাছি উ়়ড়ে বেড়ানোই পাইলটদের কাজ। অ্যাডভেঞ্চার, রোম্যান্স, অর্থ— কী নেই এই পেশায়। পাইলটরা তাই সহজেই জিতে নেন মেয়েদের মন।

৫. ডাক্তার: মানবসেবার ব্রতে এঁরা নিবেদিত। ডাক্তারদের তাই বরাবরই একটু আলাদা নজরে দেখে মেয়েরা।

৬. ব্যবসায়ী: ব্যস্ততায় ডুবে থাকা, একটু একটু করে নিজের ব্যবসার শ্রীবৃদ্ধি ঘটানো, পরিশ্রমের মাধ্যমে নিজের আর্থিক উন্নতি— একজন ব্যবসায়ীর এই সমস্ত লক্ষণকে ভাল না বেসে মেয়েরা পারে না।

৭. গায়ক: একটা গান যত সহজে মানুষের মন জিতে নিতে পারে, তার তুলনা হয় না। স্বভাবতই গায়কদের প্রতি মেয়েরাও একটু আলাদা দুর্বলতা অনুভব করে।

৮. সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার: ইঞ্জিনিয়ার তো এখন পাড়ার অলিতে-গলিতে। তাদের মধ্যেই সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারদের প্রতি একটু বেশি আকৃষ্ট হয় মেয়েরা।

৯. সাহিত্যিক: বই পড়ার চল কমে গিয়ে থাকতে পারে, কিন্তু প্রেমিক কিংবা স্বামী হিসেবে এখনও অনেক মেয়েই সাহিত্যিকদের পছন্দ করে।

১০. অভিনেতা: অভিনেতাদের কে না পছন্দ করে! নিজের ভালবাসার মানুষ হিসেবেও তাই অভিনেতাদের বেছে নিতে চায় মেয়েরা।
……

সম্প্রতি মালয়েশিয়াতে ‘বাংলাদেশ নাইটস’ শিরোনামে একটি কনসার্টে তারকাবহুল দল ঢাকা ত্যাগ করে। আর সেই দলের আড়ালে মানবপাচারের অভিযোগে দেশটির পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হয়েছেন বাংলাদেশি চিত্র পরিচালক অনন্য মামুন।

জানা গেছে এই বিশাল শিল্পী বহরের সাথে অনন্য মামুন ৫৭ জনকে ‘শিল্পী’ দেখিয়ে মালয়েশিয়া নিয়ে যান।
সেখানে যোগ দিতে চিত্রপরিচালক অনন্য মামুনের সার্বিক তত্ত্বাবধানে শুক্রবার রাতে মালয়েশিয়া যান বাংলাদেশের একঝাঁক তারকা। অনুষ্ঠানে গান পরিবেশন করেন কণ্ঠশিল্পী আসিফ আকবর, আঁখি আলমগীর, ইউছুফ, ব্যান্ডদল চিরকুট। এছাড়াও তারকাবহুল একটি দল যায়। চিত্রনায়ক নিরব ও ইমন এবং চিত্রনায়িকা শখ, আইরিন, ভাবনা, আমান ও মিষ্টি।

অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনায় ছিলেন চিত্রপরিচালক দেবাশীষ বিশ্বাস ও প্রবাসী সাংস্কৃতিক কর্মী আরুনিমা। তাঁদের আড়ালে যে বিশাল বহরে অবৈধভাবে মানবপাচার হচ্ছে এটা ঘুণাক্ষরেও টের পাননি।

গত ২২ ডিসেম্বর শনিবার কুয়ালালামপুরের পেট্রোনাস টুইন টাওয়ারের নিকটে ওয়াসমা এমসিআই হলে বিনোদনী সংস্থা ‘সিনেমাটিক’র আয়োজনে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ‘বাংলাদেশি নাইটস’ অনুষ্ঠিত হয়। অনুশঠান শেষে স্বাভাবিকভাবে দেশে ফেরার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন শিল্পীরা।

তার আগেই দেশের গণমাধ্যম মারফত জানতে পারলেন চিত্রপরিচালক অনন্য মামুনের গ্রেপ্তারের খবর।
এই ঘটনায় শিল্পীরা নিরাপদ আছেন বলে জানা গেছে। দলবদ্ধভাবে গেলেও শিল্পীরা এখন নিজ উদ্যোগেই ফিরছেন বলে জানা গেছে। শিল্পীরা শহরের বিভিন্ন হোটেলে নিজেদের মতো করে রয়েছেন। সকলেই সবার খোঁজ রাখছেন বলে জানা গেছে।

আসিফ আকবর বলেন, ‘আমি পেনাং আছি নিজের মতো করে। ২৭ ডিসেম্বর দেশে ফিরব। ‘ মিষ্টি জান্নাত ফিরবেন ভাবির বাড়িতে কয়েকদিন বেড়ানোর পরে।

চিত্রনায়ক নিরব জানালেন, এতোকিছু ঘটে গেছে তারা জানতেনই না। তিনি বলেন, আপাতত আমাদের কোনো সমস্যার মুখে পড়তে হয়নি। আমরা ভাগ ভাগ হয়ে বিভিন্ন রুম ও হোটেলে রয়েছি। তবে সবার সঙ্গে সবার যোগাযোগ আছে। কাল সকাল ৬টায় আমরা বাংলাদেশের উদ্দেশ্যে মালয়েশিয়া ছাড়বো।

অ্যাকশন কাট এন্টারটেইনমেন্টের আয়োজনে ‘বাংলাদেশ নাইটস’ অনুষ্ঠানটির সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন অনন্য মামুন।

সুত্র:কালেরকন্ঠ


প্রতিদিন সব ধরনের খবর জানতে ও মজার মজার ভিডিও দেখতে আমাদের ফেইসবুক পেজে লাইক কমেন্ট শেয়ার করে এক্টিভ থাকুন -বাংলাদেশ অনলাইন, পত্রিকা, সময় সংলাপ ডট কম,আমাদের ফেইসবুক পেজ লাইক দিতে নিচে ফেইসবুক লাইক বটন এ ক্লিক করুন ,অনেক ধন্যবাদ আবার আসবেন

sponser